প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে ফিলিপাইনে করা হয়েছে লকডাউন। আর এই লগডাউন ভেঙে কেউ রাস্তায় বের হলেই গুলির নির্দেশ দিয়েছেন ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতের্তে।

 

বুধবার শেষ রাতে জাতির উদ্দেশে দেয়া এক টেলিভিশন ভাষণে এমন নির্দেশ দেন রদ্রিগো।

 

দেশটির সবচেয়ে বড় দ্বীপ লুজানে করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের এ নির্দেশ দেন তিনি। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বুধবার ফিলিপাইনের স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২৩১১ জন, যার বেশিরভাগই লুজান দ্বীপে। আক্রান্তদের মধ্যে অন্তত ৯৬ জন মারা গেছেন।

যে কারণে লুজানে মাসব্যাপী লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। কিন্তু অনেকেই লকডাউন না মেনে রাস্তায় বের হচ্ছেন। জনসমাগম করছেন। সামাজিক দূরত্ব সেভাবে বজায় রাখছেন না।

তাই প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দেশটির পুলিশ ও সামরিক বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন, যারাই বাড়ির বাইরে বের হয়ে সমস্যা সৃষ্টি করবে, তাদের যেন দেখামাত্রই গুলি করা হয়।

তিনি বলেন, ‘সবার জন্য এটি একটি সতর্কবার্তা। চলমান পরিস্থিতিতে লকডাউন সঠিকভাবে মেনে চলতে হবে। সরকারের দেয়া সব নির্দেশনা পালন করতে হবে। অন্যথায় আমরা করোনাকে পরাজিত করতে পারব না।’

তিনি হুশিয়ারি দেন, ‘চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের কোনো ধরনের ক্ষতি করার মতো মারাত্মক অপরাধ করবেন না। আমি পুলিশ ও সামরিক বাহিনীকে নির্দেশ দিচ্ছি– যদি কেউ বাড়ির বাইরে বের হয়ে সমস্যা তৈরি করে তা হলে তাকে দেখামাত্রই গুলি করুন।’

আলজাজিরা জানায়, গত দুই সপ্তাহ ধরে লকডাউন চলছে রাজধানী ম্যানিলায়। সম্প্রতি সেখানকার একটি বস্তির বাসিন্দারা রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে দাবি করে, তাদের কাছে কোনো সরকারি ত্রাণ পৌঁছায়নি। এখন তাদের না খেয়ে মরার উপক্রম। তাই এমন লকডাউন মানতে নারাজ তারা।

তবে রদ্রিগোর নির্দেশে ওই বিক্ষোভ ছত্রভঙ্গ করে দিয়ে পুলিশ ২০ জনকে গ্রেফতার করে।

সুত্রঃ যুগান্তর

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *